নতুন ওয়েবসাইটে কিভাবে ট্রাফিক বাড়ায় How to Increase Traffic on New BLOG

নতুন ওয়েবসাইটে কিভাবে ট্রাফিক বাড়ায়? How to Increase Traffic on New BLOG?

Blogging Tips Tips and Tricks

নতুন ওয়েব সাইট তৈরি করার পর সবচেয়ে বড় চিন্তার বিষয় হলো নতুন ওয়েবসাইটে কিভাবে ট্রাফিক বাড়ায়? আজকের এই পোস্টে আমি আপনাদের সাথে নতুন ওয়েব সাইটে বা ব্লগে কিভাবে ভিজিটর বা ট্রাফিক বা লোক নিয়ে আসা যায় তার কিছু কার্যকরী টিপস বলবো। ট্রাফিক না পাওয়ার অনেক কারন থাকতে পারে কিন্তু আজকে আমি কিছু টিপস দিবো তা যদি আপনি সঠিক ভাবে প্রয়োগ করেন তাহলে সাইটে ট্রাফিক আসা শুরু হয়ে যাবে।

নতুন ওয়েবসাইটে কিভাবে ট্রাফিক বাড়ায়?

লং টেইল কিওয়ার্ডস (Long Tail Keywords)

পোস্ট বা কনটেন্ট করার সময় আপনাকে অবশ্যই কিওয়ার্ডস এর উপর খেয়াল রাখতে হবে। শুধু কিওয়ার্ডস হলেই হবে না তা হতে হবে লং টেইল কিওয়ার্ডস। লং টেইল কিওয়ার্ডস বলতে বোঝায়- ধরুন আপনি বেস্ট ডিএসএলআর (DSLR) নিয়ে কোনো পোস্ট করবেন তখন সেখানে শুধু বেস্ট ডিএসএলআর না দিয়ে সেখানে ব্যবহার করুন ৩০ হাজার টাকার ভিতর বেস্ট ডিএসএলআর, বা নতুন দের জন্য ৩০ হাজার টাকার ভিতর বেস্ট ডিএসএলআর, বা ইউটিউবার দের জন্য ৩০ হাজার টাকার ভিতর বেস্ট ডিএসএলআর ইত্যাদি।

পপুলার লোকের সাথে ইন্টারভিউ (Interview With Trending People)

নতুন সাইটে ট্রাফিক আনার জন্য এই ট্রিকস টা আমার সবচেয়ে কার্যকর মনে হয়েছে তা হলো পপুলার লোকেদের সাথে ইন্টারভিউ করা। আপনি কি করতে পারেন সেই টপিক নিয়ে আপনার ব্লগ বা ওয়েবসাইট বানিয়েছেন সেই রিলেটেড পপুলার লোক বা ছেলিব্রেটিদের সাথে ইন্টারভিউ করে আপনার ওয়েব সাইটে তা পোস্ট করে দিন। এতে করে সে নিজেও তার সোস্যাল মিডিয়ায় সহ নানা জায়গায় শেয়ার করবে এতে করে আপনি সাথে সাথেই ট্রাফিক পেতে শুরু করবেন। আর পপুলার লোক সব সময়ই ইন্টারভিউ দিতে চায়। সবার ইন্টারভিউ না নিয়ে সেই টপিক নিয়ে আপনার ওয়েব সাইট সেই বিষয় নিয়ে যারা ট্রেনডিং বা আলোচনায় তাদের নিয়ে ইন্টারভিউ করুন। ইন্টারভিউ মানুষকে আকর্ষন করে এবং উৎসাহিত করে।

ইউটিউব ভিডিও বানান (Create Youtube Video on Same Topic)

তিন নম্বর টিপস হলো আপনি যেই সম্পর্কে আপনার সাইট বা ব্লগ তৈরি করেছেন সেই টপিক এর উপর ভিডিও বানান। ইউটিউবে ভিডিও আপলোড করে সেখানে আপনার ওয়েব সাইটের লিঙ্ক দিতে পারেন এবং ভিডিও তে এখন কিছু যোগ করে দিন যাতে তার ভিজিটর আপনার সাইটে ডুকে আর আপনি ট্রাফিক পেয়ে যান। ঐ পোষ্টেও আপনি এই ভিডিও যোগ করে দিতে পারেন। এতে করে যদি কেউ অন্য কোথাও থেকে এসে আপনার পোষ্টটি পড়ে তাহলে সে ইউটিউব ভিডিও দেখতে পারে এতে করে আপনার দুই দিকেই ট্রাফিক পাওয়ার সম্ভাবনা বেড়ে যায়।

পুশ নোটিফিকেশন ব্যবহার করুন (Use Push Notification)

পুশ নোটিফিকেশন ভিজিটর আবার ফিরিয়ে আনার একটা কার্যকরী উপায়। পুশ নোটিফিকেশন এর মাধ্যমে ভিজিটর সাবসক্রাইব হয়ে থাকে যার ফলে নতুন কোনো পোষ্ট করলেই তা সরাসরি সেই সব ভিজিটর দের দেখায় যারা পুশ নোটিফিকেশন অন করেছে। সেখান থেকে অনেক ভিজিটরই আবার ওয়েব সাইটে ফিরে আসে যদি কোনো পোষ্ট তার ভালো লাগে। নিউজলেটারও ব্যবহার করতে পারেন। পুশ নোটিফিকেশন এবং নিউজলেটার সাবসক্রাইব অনেকটা একই রকম।

সামাজিক মাধ্যম ব্যবহার করা  ‍(Social Media Branding)

অনেকেই ওয়েব সাইট বানানোর পর মনে করে তার সব কাজ শেষ। সামাজিক মাধ্যমেও আপনাকে ব্যান্ডিং বা প্রোমোশন করতে হবে। যেমন আপনার ওয়েবসাইটের নামে বা সেই টপিক এর উপর ফেসবুকে, টুইটার, ইন্সট্রাগ্রাম ইত্যাতি তে একাউন্ট খুলতে হবে এবং আপনার নতুন নতুন পোষ্ট গুলো সেখানে শেয়ার করতে হবে। একাউন্ট বা পেইজ গুলোতে ট্রপিক রিলেটেড মানুষকে এড করুন যারা আপনার পোষ্ট করা টপিক  গুলোর প্রতি আগ্রহী। এছাড়া মিডিয়াম ব্যবহার করতে পারেন। এগুলো আপনাকে গুগলে দ্রুত র‌্যাংকিং এ আসতে সাহায্য করবে। যখন কোনো সামাজিক মাধ্যম থেকে ভিজিটর আসে এবং অনেক ক্ষন সাইটে অবস্থান করে তখন গুগলের মনে হয় যে এটা ভালো পোষ্ট বা কোয়ালিটি সম্পূর্ন একটি পোষ্ট তখন গুগল তা র‌্যাংকিং এ সামনে নিয়ে আসে।

ফেসবুক গ্রুপ  ‍(Facebook Group)

আপনার ওয়েবসাইট রিলেটেড ফেসবুক গ্রুপ খুলুন আর সেখানে আপনার পোষ্ট গুলো শেয়ার করুন। সেখানে মানুষকে এড হওয়ার জন্য বলুন এবং সেখানে যারা আপনার পোষ্ট পড়ে বুজতে পারে নি তাদের সরাসরি সাহায্য করুন। এতে করে আপনার ব্র্যান্ডিং হবে। এছাড়া আপনার কনটেন্ট রিলেটেড বিভিন্ন গ্রুপে এড হতে পারেন এবং আপনার পোষ্ট গুলো শেয়ার করতে পারেন।

পোষ্ট আপডেট রাখুন  ‍(Update your old Article)

আপনার ওয়েব সাইটের পুরাতন পোষ্ট গুলোকে আপডেট করে রাখুন এতে করে গুগলে আপনার র‌্যাংকিং বাড়বে। কারণ গুলো সব সময় আপডেট থাকা পোষ্ট গুলো সামনে রাখে ভিজিটর তার কাঙ্খিত ফলাফল টি খুজে পায়। যদি নতুন কোনো আপডেট আসে তাহলে তা আপনার পোষ্টে এড করে দিন।

গুগল সার্চ  কনসোল ‍(Google Search Console)

গুগল সার্চ কনসোল এ আপনার ওয়েব সাইট টি সাবমিট করুন। এর ফলে যখনই আপনি কোন নতুন পোষ্ট করবেন তখন সাথে সাথেই তা ইনডেক্স হয়ে যাবে। আপনার পোষ্ট ইনডেক্স না হলে আপনি কখনই ট্রাফিক পাবেন না। তাই পোষ্ট করার পর তা অবশ্যই ইনডেক্স করতে হবে।

টাইটেল এবং থামবনেইল ‍(Attractive Title and Thumbnail)

পোষ্টের টাইটেল ভালো ভাবে এবং আকর্ষনীয় ভাবে দিতে হবে যাতে করে ভিজিটর এট্রাকটেড হয় এবং ওয়েব সাইট ভিজিট করে। ভালো থামবনেইল হলে থামবনেইল থেকেও অনেক ভিজিটর আশা করা যায়। এমন ভাবে টাইটেল দিতে হবে যাতে দেখলেই পড়তে মন চায়।

ইউজার এর জন্য লিখুন ‍(Write for users)

আপনি অফ পেইজ এসইও, অন পেইজ এসইও আর যাই যাই করুন না কেনো আপনার কনটেন্ট অবশ্যই ইউজার এর ভালো লাগতে হবে তা না হলে ইউজার আসবে আর সাথে সাথেই চলে যাবে এতে করে আপনার ওয়েব সাইটের বাউন্স রেট বেড়ে যাবে ফলে র‌্যাংকিং ও কমে আসবে। তাই চেষ্টা করুন ইউজার এর জন্য পোষ্ট করতে এতে করে আপনার পোষ্ট এমনি তেই র‌্যাংকিং এ আসবে যদি ইউজার পছন্দ করে।

Leave a Reply

Your email address will not be published.