সত্য প্রকাশ হওয়ায় চটেছেন নোবেল

Entertainment Lifestyle

সড়ক দুর্ঘটনায় গুরুতর আহত হয়েছিলেন রিয়েলিটি শো থেকে ওঠে আসা গায়ক মাইনুল আহসান নোবেল। নিজের ফেসবুকে স্ট্যাটাস দিয়ে দুর্ঘটনার কথা জানিয়েছিলেন। তার ভাষ্য, এক বয়ষ্ক লোককে বাঁচাতে গিয়ে গুরুতর আহত হয়েছেন তিনি।

কিন্তু নোবেলের এ দাবিকে মিথ্যা বলে উল্লেখ করেছেন শোয়াইব বিন আহসান নামের এক প্রত্যক্ষদর্শী। আর নোবেলের দুর্ঘটনার ভিডিও সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে প্রকাশ করেছিলেন আমিনুল ইসলাম আমিন নামের একজন।

শোয়াইব তার ফেসবুকে লিখেছিলেন, ‘রং সাইডে বাইক চালিয়ে সাইকেল আরোহী রোজাদারের ওপর দিয়ে এভাবেই বাইকটা চালাইয়া দিলা। যেখানে লোকটা সারাদিন পানাহারের পর ইফতার করে তার ক্ষুধা নিবারণের কথা, সেখানে লোকটা মৃত্যুর সঙ্গে পাঞ্জা লড়ে। আর তুমি একজন রোজাদারকে মৃত্যুর পথযাত্রী বানাইয়া আরেকজন বৃদ্ধকে জীবনদানের গল্প শুনাও! কী সুন্দর মিথ্যাচার করে আবার আল্লাহর শুকরিয়া আদায় করছে!’

এ নিয়ে বিভিন্ন গণমাধ্যমে সংবাদ প্রকাশ হয়েছিল। তার রেশ ধরে এবার সত্য প্রকাশ হওয়ায় চটেছেন নোবেল। নিজের ফেসবুকে লম্বা একটি স্ট্যাটাস দিয়েছেন রোববার (২৫ এপ্রিল)।

তিনি লিখেছেন, ‘আসসালামু আলাইকুম। আমি মানুষ। নোবেল। আমার মৌলিক চাহিদা খাওয়া, ঘুমানো, সৃষ্টিকর্তার ইবাদত করা এবং রাসুল (সা:) এর দেখানো পথে চলা। কিন্তু দুর্ভাগ্য অথবা সৌভাগ্যবশত, আমার মৌলিক প্রফেশন অথবা বিনোদনের মাধ্যম গান শোনা, তারপর গান গাওয়া। যা হয়ত অনেকের পছন্দ, অনেকের নয়। সে বিষয়ে দু:খিত।’

তিনি আরও লেখেন, ‘ছোটবেলায় নিউজপেপারে সুডোকু খেলতাম। শুকরিয়া। এরপর নিউজপেপার আর আমার কোনো কাজে এসেছে? ঠিক মনে পড়ে না। তবে হ্যাঁ! যেহেতু ‘নোবেল’ আপনাদের কাছে একটা পরিচিত নাম, এই নামে কিছু নিউজ তো ছাপা হতেই পারে। এতে ঘাবড়ে যাবার কিছু নেই।
পত্রিকা নিয়ে এতো মাতামাতির কী আছে? এখন তো ইন্টারনেটের যুগ। পড়াশোনাও অনলাইনে হচ্ছে। পাশের বাড়ির খালাতো ভাই গতকাল ইউটিউব চ্যানেল তৈরী করে বলতেছে, নোবেল ভাই! আমি সাংবাদিকতা শুরু করতেছি। দোয়া কইর। বললাম, ওকে।’

পত্রিকার সাংবাদিক অথবা নোবেল কেউ দৈববাণী প্রাপ্ত আল্লাহ ওলি না উল্লেখ করে এ গায়ক আরও লেখেন, ‘আমরা কেউই দৈববাণী প্রাপ্ত আল্লাহর ওলি-আউলিয়া নই যে অন্ধভাবে বিশ্বাস করতে হবে। নিউজপেপারে তো অনেক খবরই ছাপা হয়। আর আমিও রোজ-রোজ তামাশা করি। সে বিষয়ে আমরা সকলেই অবগত এবং আমিও দু:খিত।’

সত্য প্রকাশ হওয়ায় চটেছেন নোবেল
         সত্য প্রকাশ হওয়ায় চটেছেন নোবেল

লম্বা স্ট্যাটাসের শেষে নোবেল উল্লেখ করেন, ‘মাথায় ৩০টা সেলাই কেউ নিয়ে তামাশা করে না। আর আমি প্রকাশ্যে, অগোচরে এমনকি অবচেতনেও মিথ্যাচার করি না। প্রকাশ্যে মিথ্যা বলতে পারলে এতো সমালোচনা থাকত না। তবে সমালোচনা নিয়ে ইদানিং আর বিচলিত হই না। আল্লাহ আমাদের সকলকে সঠিকটা বোঝার এবং জানার তৌফিক দান করুক, আমিন।’

নোবেলের নতুন স্ট্যাটাস ও দুর্ঘটনার ব্যাপারে জানতে রোববার (২৫ এপ্রিল) রাতে তার ব্যক্তিগত নাম্বারে যোগাযোগের চেষ্টা করা হলে বন্ধ পাওয়া গেছে। এদিকে খোঁজ নিয়ে জানা গেছে, নোবেলের দুর্ঘটনা নিয়ে সত্য প্রকাশ করা শোয়াইব বিন আহসানকে নিজের ফেসবুকে ব্যান করে রেখেছেন নোবেল।

সময় নিউজকে শোয়াইব বলেন, ‘আমি নোবেলের স্ট্যাটাসটি দেখেছি। কিন্তু আমি কোনো লাইক, কমেন্টস করতে পারছি না। আমাকে ব্যান করে রাখা হয়েছে।’

এর আগে বৃদ্ধকে বাঁচানোর গল্প মিথ্যা দাবি করে শোয়াইব সময় নিউজকে বলেছিলেন, ‘সাইকেলওয়ালা লোকটির বয়স আনুমানিক ২৫-৩০ বছর। কোনোভাবেই বৃদ্ধ নন। দুর্ঘটনাস্থলের পাশেই একটি বাড়িতে সিসিটিভি রয়েছে। তার ফুটেজ চেক করলেই বিষয়টি পরিষ্কার হয়ে যাবে।’ এ সময় তিনি প্রতিবেদককে ঘটনাস্থলে যাওয়ার কথা বলেন।

Leave a Reply

Your email address will not be published.